1. ayanabirbd@gmail.com : সামিয়া মাহজাবিন :
বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন ২০২১, ১১:৩৩ পূর্বাহ্ন

টানা তিন ঘন্টায় পুড়ে ছাই এক হাজার ঘর

মামুন সিরাজী
  • আপডেট টাইম :: সোমবার, ৭ জুন, ২০২১

বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে রাজধানীর মহাখালীর সাততলা বস্তিতে লাগা ভয়াবহ আগুন প্রায় তিন ঘণ্টা চেষ্টার পর নিয়ন্ত্রণে এনেছে ফায়ার সার্ভিস। সোমবার ভোর চারটার দিকে লাগা আগুন সকাল ৭টার দিকে নিয়ন্ত্রণে আসে।

 

 

আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে কাজ করে ফায়ার সার্ভিসের ১৮টি ইউনিট। এখন পর্যন্ত আগুনে কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। মোট ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ এখন পর্যন্ত জানা না গেলেও ধারণা করা হচ্ছে বস্তির অন্তত এক হাজার ঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

সাততলা বস্তির আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন ফায়ার সার্ভিসের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাজ্জাদ হোসেন। তিনি বলেন, ‘আগুন ছড়িয়ে পড়ার সব উপাদানই বস্তিতে ছিল। সম্পূর্ণ অপরিকল্পিতভাবে গড়ে উঠেছে এই বস্তি। এখানে অবৈধ গ্যাস ও বিদুৎ সংযোগও রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে- গ্যাস বা বিদুৎ সংযোগ থেকে আগুনের সূত্রপাত।’

সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার পর বস্তি এলাকা পরিদর্শন করেন ফায়ার সার্ভিসের মহাপরিচালক। এ সময় তিনি বস্তিবাসীর সঙ্গে কথা বলে বিভিন্ন বিষয় জানার চেষ্টা করেন।

 

 

এর আগে ফায়ার সার্ভিসের ডিউটি অফিসার কামরুল ইসলাম জানান, ভোর চারটার দিকে আগুনের খবরে প্রথমে তাদের আটটি ইউনিট ঘটনাস্থলে যায়। এরপর আগুনের ভয়াবহতা বাড়ায় একে একে ১৮টি ইউনিট সেখানে পাঠানো হয়। ফায়ার সার্ভিসের পাশাপাশি বস্তির বাসিন্দারাও আগুন নেভানোর কাজে যোগ দিয়েছিলেন।

তিনি আরো জানান, বস্তির ঘর-বাড়ি বাঁশ ও কাঠের কাঠামোতে তৈরি করা হয়েছে। ফলে আগুন সহজেই চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে। দক্ষিণা বাতাসের কারণে আগুন নিয়ন্ত্রণ করতে কিছুটা সময় লেগেছে। এখন ডাম্পিংয়ের কাজ চলছে। কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। মোট ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণও জানা যায়নি।

এর আগেও কয়েক দফা আগুনের ঘটনা ঘটেছে মহাখালীর সাততলা বস্তিতে। সবশেষ ২০২০ সালের ২৪ নভেম্বর মহাখালীর এই বস্তিতে অগ্নিকাণ্ডে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়। প্রতিবারই বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর