ঢাকাসোমবার , ১৪ জুন ২০২১
  1. অর্থনীতি
  2. আইন আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. ইউ কৃষি
  5. ইউ মিউজিক
  6. ইউ স্পোর্টস
  7. ইউটিভি পরিবার
  8. ইয়ুথ ব্লেন্ড
  9. উদোক্তা
  10. উৎসব
  11. এককাপ চা
  12. এক্সক্লুসিভ
  13. খেলা
  14. গণমাধ্যম
  15. গসিপ
আজকের সর্বশেষ সবখবর

পরীমনির কান্নার জবাব নেই কারো কাছেই !

প্রতিবেদক
ইউটিভি
জুন ১৪, ২০২১ ২:৪৬ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

আমি আত্মহত্যা করার মতো মেয়ে না, আমি যদি মরে যাই তাহলে বুঝবেন আমাকে মেরে ফেলা হয়েছে। জানাচ্ছিলেন পরীমনি।

 

আমি আত্মহত্যা করবো না, আমি আমার সাথে অন্যায়ের বিচার না নিয়ে আত্মহত্যা করবো না। বাংলা চলচ্চিত্রের নায়িকা পরীমনি কান্নাজড়িত কণ্ঠে সাংবাদিকদের কাছে এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, নাসির উদ্দিন মাহমুদ আমাকে ধর্ষণ ও হত্যার চেষ্টা করেছেন। আমার গায়ে যখন হাত তোলা হয় তখন বারবার বলেছিল- আমাকে তিন টুকরো করে ভাসিয়ে দেবে।

 

 

রোববার (১৩ জুন) রাত সাড়ে ১১টার দিকে পরীমনি নিজের বাসায় সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

পরীমনি বলেন, আমার সঙ্গে অন্যায় করা হয়েছে, আমি অন্যায়ের বিচার চাই। আমাকে যদি কেউ মেরে ফেলে তাহলে মিডিয়া যেন তার বিচার করে। আমার সঙ্গে যে অন্যায় করা হয়েছে এর বিচার চাই।

 

 

এই ঘটনায় আপনি কি মামলা করবেন সাংবাদিকের এমন প্রশ্নে পরীমনি বলেন, আমার মামলা কে নেবে? আমি সঠিক বিচার চাই। আপনারা নিউজ করে চলে যাবেন না, আমি ভয় পাচ্ছি, আমার নিরাপত্তা দিবে কে? আমাকে নিরাপত্তা দেন।

পরীমনি বলেন, আমি এখন খুব বিশ্বাস করি, একজন সাধারণ মেয়ে যদি ভিকটিম হয়, আত্মহত্যা ছাড়া তার কাছে আর কোনো পথ খোলা থাকে না। সাধারণ মেয়ে হিসেবে গত চার দিন ধরে অনেকের দাঁড়ে দাঁড়ে ঘুরেছি কেউ সহযোগিতা করেনি। একজন পরীমনি হিসেবে ফেসবুকে যখন স্ট্যাটাসটি দিলাম তখনই মিডিয়া এসেছে।

 

 

সাধারণ মেয়েরা ভিকটিম হলে প্রথমে থানায় যায়, কিন্তু থানা ভিকটিমের কথা ঠিকভাবে শুনতে চায় না। যেখানেই সহযোগিতার জন্য গিয়েছি, সেখানেই জানানো হয়েছে- মিডিয়াকে ঘটনাটি জানানোর দরকার নেই। গত চার দিন ধরে এভাবে চলার পরও বিচার পাননি বলে জানান পরীমনি।

 

 

এর আগে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে। অভিযোগ আনেন হত্যাচেষ্টারও। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ্য করে আবেদনপত্রের ঢঙে লেখা ওই স্ট্যাটাসে পরীমনি লেখেন- ‘আমার আপনাকে দরকার মা। আমার এখন বেঁচে থাকার জন্য আপনাকে দরকার মা। মা আমি বাঁচতে চাই। আমাকে বাঁচিয়ে নাও মা।’

প্রতিবেদক

প্রতিবেদক